পানামা পেপার্সে বাংলাদেশি : নিরাপত্তা পেলে অর্থ ফেরত আসবে

a-h-m-kamalপরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেছেন, নিরাপত্তা পেলে বিদেশে পাচার করা অর্থ ফেরত আসবে। নিরাপত্তা পাওয়া যায়নি বলেই টাকা বাইরে নিয়ে গেছে। টাকা যারা অর্জন করেন তারা নিরাপত্তাজনিত কারণেই তা বিভিন্ন দেশে রাখছে।

মঙ্গলবার রাজধানীর শেরে বাংলা নগরের এসইসি সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনেক) সভা শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ মন্তব্য করেন।

পানামা পেপার্স ও অফশোর লিকস মিলিয়ে সাবেকমন্ত্রী ও ব্যবসায়ীসহ অর্ধশতাধিক বাংলাদেশির নাম এসেছে। যাদের মধ্যে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের নেতা কাজী জাফরউল্লাহ ও নীলুফার জাফর উল্লাহও রয়েছেন। পানামার ল’ ফার্ম মোস্যাক ফনসেকার বিপুল সংখ্যক নথি গত মাসে ফাঁসের পর বিশ্বজুড়ে তা নিয়ে তুমুল আলোচনা চলছে। এতে বিশ্বের অনেক রাষ্ট্রনেতারও অফশোর কোম্পানির মাধ্যমে অর্থ পাচারের চিত্র প্রকাশ পায়।

কামাল বলেন, যেখানে কদর ও লাভ বেশি টাকা উপার্জনকারীরা সেখানেই টাকা রাখবেন। আমরা টাকা ফিরিয়ে আনার ব্যবস্থা করছি। যখন তারা (অর্থ পাচারকারীরা) বুঝতে পারবেন বাংলাদেশে নিরাপত্তা পাবে ও লাভ বেশি তখন এখানেই টাকা রাখবে।

তিনি বলেন, বিদেশে টাকা রাখা এখন আর গোপন করা যায় না। মানিলন্ডারিং আইন হয়েছে। যা আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত। ফলে যেখানেই টাকা থাকবে, তারা তথ্য দিতে বাধ্য।

মন্ত্রী বলেন, সৎ পথে টাকা অর্জন করা অপরাধ নয়। বরং সম্পদশালী হওয়াটা সৌভাগ্যের বিষয়।

বরিশালের দ্বীপ জেলা ভোলায় একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন করতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পরামর্শ দিয়েছেন বলে একনেক সভা শেষে পরিকল্পনামন্ত্রী সাংবাদিকদের জানান।

তিনি বলেন, ভোলার সংসদ সদস্য বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহাম্মেদকে ওই অঞ্চলে একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের বিষয়ে উদ্যোগ নেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। জবাবে তোফায়েল আহাম্মেদ ওই অঞ্চলে শিগগিরিই একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন করা হবে বলে প্রধানমন্ত্রীকে আশ্বস্ত করেছেন। এই সময় বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়টি ’শেখ হাসিনা’ নামে নামকরন করা হবে বলে ঘোষণা দেন।

Pin It