অর্থ কেলেঙ্কারির অভিযোগ নাকচ করলেন খালেদা

khaleda-ziaদলের স্থায়ী কমিটির নেতাদের সঙ্গে টানা দুই ঘণ্টা রুদ্ধদ্বার বৈঠক করেছেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। সোমবার রাতে চেয়ারপারসনের গুলশানের রাজনৈতিক কার্যালয়ে বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হয়।

বৈঠক শেষে আনুষ্ঠানিকভাবে কোনো প্রতিক্রিয়া জানায়নি দলটি। সূত্র জানিয়েছে, বৈঠকে দলের মনোনয়ন বাণিজ্যের সঙ্গে সম্পৃক্ত নেতাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানান স্থায়ী কমিটির নেতারা। তবে বিএনপি চেয়ারপারসন তাদের এমন অভিযোগ নাকচ করেছেন। খালেদা জিয়া স্থায়ী কমিটির নেতাদের এমন দাবির পরিপেক্ষিতে বলেছেন গণমাধ্যম বিষয়টি নিয়ে বাড়াবাড়ি করছে।

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি বেশ কয়েকটি গণমাধ্যমে অর্থের বিনিময়ে বিএনপিতে পদ দেয়ার সংবাদ প্রকাশিত হয়। এক নেতার ব্যাংক অ্যাকাউন্টে অস্বাভাবিক লেনদেনের বিষয়টিও প্রকাশ হয়।

এদিকে বৈঠকে অংশ নেয়া দুই স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস ও গয়েশ্বর চন্দ্র রায় ছাড়া সব নেতা অর্থ কেলেঙ্কারির সঙ্গে জড়িতদের চিহ্নিত করার পরামর্শ দেন খালেদাকে। এতে দলের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হচ্ছে বলেও মন্তব্য করেন তারা। তবে বেগম জিয়া এটাকে সরকারের ষড়যন্ত্র বলে উল্লেখ করেন। পাশাপাশি এমন সংবাদ প্রকাশে গণমাধ্যমকে দোষারোপ করেন তিনি।

বৈঠকে চলমান ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে থাকার বিষয়ে ফের সিদ্ধান্ত হয়। পাশাপাশি ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের পক্ষে থাকার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। বৈঠকে দলটির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের মৃত্যুবার্ষিকী (৩০ মে) উপলক্ষে লম্বা সময় ধরে কর্মসূচি পালনের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলেও জানা গেছে।

খালেদা জিয়ার সভাপতিত্বে বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ, লে জে অব মাহবুবুর রহমান, ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) আ স ম হান্নান শাহ, ড. আবদুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায় প্রমুখ।

Pin It